Meriners’Base Camp এর কয়েকদিন অভিজ্ঞতায় ….. — Ujjal Sar


ছোট্ট বেলা থেকেই  মোহনবাগান নিয়ে খুব আগ্রহী… গ্রামে থাকার কারণে কোনোভাবেই সুযোগ হয়ে ওঠেনি… ময়দান দেখার… হঠাৎ শহরে আসা হলো… ভাবলাম.. এবার সম্ভব হবে.. সেই প্রাচীন ডার্বি দেখার… ভেবেই খুব খুশি তে ছিলাম.. সবকিছু এর মাঝে… একলা হয়ে পড়লাম.. প্রথম ডার্বি একলা মাঠে বসে দেখলাম… C2 টা ভালো স্ট্যান্ড.. মাঝে বসে খেলা দেখব.. কাউকে চিনি না.. জানি না..মাঠে বসে গলা তে গলা মেলালাম.. তবুও মাঠ থেকে বেরোনোর পর.. একলা হলাম.. তারপর বাড়িতে এসে ডার্বি এর কথা মনে করতে করতে… মনে পড়লো.. ডান দিকের একটা গ্যালারি থেকে… কারা যেনো সারাক্ষণ মোহনবাগান নিয়ে গান গাইছে…মোহনবাগান নিয়ে সুন্দর সুন্দর টিফো… সারাক্ষণ মেতে উঠেছে… জানতে পারলাম.. ওটা Meriners’ Base Camp… জাতীয় দলের আল্টাস.. শুনে কেমন একটা উৎসাহ চলে এলো.. মনের মধ্যে.. এইতো সুযোগ… দলের হয়ে গলা ফাটানোর.. ব্যাস সেই সুযোগ ও হয়ে গেলো.. কেমন যেনো.. জীবনটা পাল্টে গেলো.. কিভাবে কি হলো.. বুঝলাম না… আমিও যুক্ত হয়ে গেলাম.. আমি ওদের সঙ্গে টিফো নামাচ্ছি.. মেতে থাকা 90min. মাঠের মধ্যে যেমন সম্পর্ক… মাঠের বাইরেও যেনো একই থেকে গেলাম..কতকিছু নিয়ে আলোচনা.. পরের ম্যাচ নিয়ে আলোচনা… সবাই কেমন ভাই ভাই বলে ডাকে.. হয়তো কাজের সূত্রে সেভাবে থাকতে পারিনা… কিন্তু.. কিভাবে যেনো গোল পোস্ট এর পেছনের গ্যালারি টা প্রিয় হয়ে উঠলো… এখনো আমি সেভাবে বড় হইনি… আগামী বড় হওয়া Base camp er সাথে স্বচ্ছন্দে হবে তা আমি নিশ্চিত…
Ultras for life জয় মোহনবাগান  ️